স্রোতের সাথে তাল মেলাতে না পেরে হারিয়ে যাওয়া টেক জায়ান্ট ইয়াহুর গল্প

দুজন পিএইচডি শিক্ষার্থীর ১ মিলিয়ন ডলারের অ্যালগরিদম কেনা তখন ইয়াহুর কাছে যুক্তিযুক্ত লাগেনি। এই সিদ্ধান্তের ফলেই এক টেক জায়ান্টের উত্থান, অন্যটির পতন
Please wait 0 seconds...
Scroll Down and click on Go to Link for destination
Congrats! Link is Generated

২০০০ সালে ১২৫ বিলিয়ন ডলার মূল্যমান কোম্পানি ইয়াহু ২০১৬  সালে মাত্র ৪.৪৮ বিলিয়ন ডলারে বিক্রি হয় টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি ভেরাইজন এর কাছে। আর এই চুক্তিকেই ফোর্বসের লেখক ব্রায়ান সলোমন আখ্যায়িত করেছেন "প্রযুক্তি দুনিয়ার সবচেয়ে দুঃখজনক চুক্তি " হিসেবে।

গুগলের রাজত্বের আগে ইন্টারনেট দুনিয়ায় রাজত্ব করা ইয়াহুর কথা কম বেশি সবারই জানা। এক সময়ের জনপ্রিয় ইয়াহু সার্চ, ইয়াহু মেইল, ইয়াহু নিউজ সহ টেক জায়ান্ট ইয়াহু আজ হারিয়ে গেছে। কিভাবে হারিয়ে গেলো টেক জায়ান্ট ইয়াহু?

যেভাবে রাজত্ব হারালো ইয়াহু

শুরু করছি একটা ছোট গল্প দিয়ে, ১৯৯৮ সালে স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটির দুজন পিএইচডি শিক্ষার্থী টেক জায়ান্ট ইয়াহুর কাছে তাদের অ্যালগরিদম বিক্রির জন্য গিয়েছিল। মাত্র ১ মিলিয়ন ডলার মূল্যে বিক্রি করতে চাওয়া ঐ অ্যালগরিদম কেনা তখন ইয়াহুর কাছে যুক্তিযুক্ত মনে হয়নি। এই ছোট্ট কাহিনীর পেছনেই রয়েছে এক টেক জায়ান্টের পতন, আর অন্য এক টেক জায়ান্টের উত্থান। 

যেভাবে রাজত্ব হারালো ইয়াহু

আর্চি, ভেরোনিকা, জাগহেড সার্চ ইঞ্জিনগুলোর উত্থান ও ক্রমবিকাশের ধারাবাহিকতায়, ১৯৯৪ সালে স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটির দুই ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার ডেভিড ফিলো এবং জেরি ইয়াং এর হাত ধরে ইয়াহুর যাত্রা শুরু হয়। শুরুতে ডেভিড এবং জেরি তাদের ওয়েবসাইটের নাম দিয়েছিলেন “David and Jerry’s guide to the World Wide Web” নামে। ঐ বছরেরই মার্চ মাসে তারা ওয়েবসাইটটির নাম পরিবর্তন করে 'ইয়াহু' । তাদের ওয়েবসাইটটি বানানোর উদ্দেশ্য ছিল খুব সাধারণ। সেসময়ের বিক্ষিপ্ত পুরো ইন্টারনেট দুনিয়াকে সাজিয়ে একটি টেলিফোন ডিরেক্টরির মতো ওয়েবসাইটের একটি ডিরেক্টরি তৈরি করা। আর সেই সময়ের জন্য যুগোপযোগী এবং অত্যন্ত প্রয়োজনীয় ছিল সেই ওয়েবসাইটটি যা প্রযুক্তি জগতের বৃহৎ প্রচেষ্টা গুলোর অনন্য উদাহরণ। 

ইয়াহুর উত্থান

নব্বই-এর দশকে ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবের পরিচিতি সেভাবে না থাকা সত্ত্বেও ইয়াহু খুব দ্রুত জনপ্রিয়তা পেতে শুরু করে। ১৯৯৬ সালে ইয়াহুর প্রথম পাবলিক অফারিং এ মূল্য ছিল প্রায় ৯০০ মিলিয়ন ডলার, যা সে সময়ের হিসেবে অনেক বড় অংক। আর সঠিক সময়ে সঠিক রাস্তায় থাকলে যে সফল্য আসবেই তার চরম একটি উদাহরণ ইয়াহু। পরবর্তী দু'বছরের মধ্যেই ইয়াহুর স্টক মূল্য প্রায় ৬০০ শতাংশ বৃদ্ধি পায়। ১৯৯৮ সালের মাঝেই ইয়াহু তাদের সেবায় যুক্ত করে ইমেইল, অনলাইন ম্যাগাজিন, শপিং, গেমস, ট্রাভেলিং, ম্যাপস, ওয়েদার সহ নানা ধরনের সেবা।

ইয়াহুর শেয়ার বেড়ে ঐ বছরই মোট মূল্য গিয়ে দাঁড়ায় ৪০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে। ঝড়ের গতিতে এগিয়ে গিয়েছিল ইয়াহু। আর তারপরই সার্চ ইঞ্জিন এবং ফ্রি ইমেইল সেবা প্রদানের মাধ্যমে প্রযুক্তিবাজারের শীর্ষস্থানীয়দের দলে নাম লেখায় ইয়াহু। তখনও যাত্রা শুরু করেনি গুগল ।২০০০ সালে ইয়াহুর ইতিহাসের সর্বোচ্চ মোট মূল্যমান দাঁড়ায় ১২৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে।

বর্তমানের এই ইউটিউব, ফেসবুক এসবের ধারণাও এসেছিল ইয়াহু থেকেই। ইউটিউবের মতোই ইয়াহুর একটি প্লাটফর্ম ছিলো Broadcast.com, যার নামকরণ করা হয় পরবর্তীতে Yahoo TV। Evernote এর মতো Yahoo Notebook, ইন্সটাগ্রামের মতো Flickr, এবং Yahoo Music ছিল সেসময়ের Spotify। কিভাবে হারিয়ে গেল এসব?

ইয়াহুর পতন

ইয়াহুর পতনের মূল কারন একটাই। সময়ের সাথে সঠিক রাস্তায় চললেও সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারে নি ইয়াহু। শুরুতেই যে ছোট্ট গল্পটি বলেছি মনে আছে? দুজন শিক্ষার্থী একটি অ্যালগরিদম বিক্রি করতে চেয়েছিলেন গুগলের কাছে মাত্র ১ মিলিয়ন ডলারে? কে ছিলেন তার? আর কেউ নয়, গুগলের প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ এবং সের্গেই ব্রিন। তাদের তৈরি করা পেজর্যাঙ্ক অ্যালগরিদমের কারণেই আজ আমরা গুগলে একটি শব্দ লিখলেই কাঙ্ক্ষিত জিনিসটি পেয়ে যাচ্ছি, যা ইয়াহু সেই সময়ে কিনতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেল। এটিই ছিল ইয়াহুর ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ভুল সিদ্ধান্ত। তবে সেই ভুল সিদ্ধান্তের স্রোতে যুক্ত হয়েছিল আর ও অনেক ভুল। 

ইয়াহুর পতন

গুগল যখন ভালোভাবে প্রতিষ্ঠা লাভ করে, তখন ল্যারি এবং সের্গেই গুগলকে পুনরায় ইয়াহুর কাছে বিক্রির জন্য প্রস্তাব দিয়েছিলেন। আর তৎকালীন ইয়াহুর সিইও টেরি সেমেল তা গুরুত্বই দেন নি। কিন্তু যখন তার হুশ হলো ততদিনে গুগলের দাম বেড়ে হয়ে গিয়েছে ৫ বিলিয়ন ডলার। তবে সেই সময়ে একটি ঠিক সিদ্ধান্ত ও নিয়ে ফেলেছিল ইয়াহু, ওই সময়েই এক ২২ বছর বয়সী যুবক ইয়াহুর ১ বিলিয়ন ডলারের প্রস্তাবকে ফিরিয়ে দিয়েছিল, তিনি ছিলেন মার্ক জাকারবার্গ এবং ১ বিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে ফেসবুককে কিনতে চেয়েছিল ইয়াহু, কিন্তু জাকারবার্গ ভুল করেন নি। আর ভুলের স্রোতে বিক্রির ক্ষেত্রেও ইয়াহু নিয়েছিল ভুল সিদ্ধান্ত যখন ২০০৮ সালে মাইক্রোসফট ৪৪.৬ বিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে ইয়াহুকে কিনতে আগ্রহ প্রকাশ করেছিল, যা ইয়াহুর বর্তমান মূল্যের চেয়ে অনেক বেশি। কিন্তু তখন সেটিও প্রত্যাখ্যান করে ইয়াহু।

ইয়াহুর পতনের কারন

ভুল সিদ্ধান্তের পাশাপাশি ভুল বিনিয়োগ ও অব্যবস্থাপনার কারনেই হারিয়ে গেছে ইয়াহু। ১৯৯৯ সালে ইয়াহু Geocities, Broadcast.com ওয়েবসাইটের দুটি বিখ্যাত অধিগ্রহণ চুক্তি করে, যা বিবেচিত হয়েছে প্রযুক্তির ইতিহাসে অন্যতম দুটি বাজে চুক্তি হিসেবে। এর মাঝে একটি । Geocities ছিল সেই সময়ের ইন্টারনেট বিশ্বে তৃতীয় সর্বাধিক ব্রাউজ করা ওয়েবসাইট ছিল যা ১৯৯৯ সালে ইয়াহু ৩.৭ বিলিয়ন ডলারে কিনে নেয়। এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ইউজাররা ইন্টারনেটে তাদের নিজেদের ইচ্ছামত নিজেদের হোমপেজ তৈরি করতো। অব্যবস্থাপনা এবং নতুনত্বের অভাবে ধীরে ধীরে জিওসাইট ব্যবহারকারী হারাতে থাকে এবং ২০০৯ সালে বন্ধ হয়ে যায়। একই বছরে ৫.৭ বিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং সার্ভিস ব্রডকাস্টকে কিনে নেয় ইয়াহু এবং ইয়াহু ব্রডকাস্ট থেকে পৃথকভাবে ভিডিও এবং মিউজিক  সার্ভিস চালু করে। সমস্যা ছিল ভিডিও স্ট্রিমিংয়ের জন্য সেই সময়ের ইন্টারনেটের গতি ছিল অনেক ধীরগতির। সহজে বললে ব্রডকাস্ট ছিল সময়ের চেয়ে বেশি অগ্রসর। ২০০৫ সালে ইয়াহু ৩০ মিলিয়ন ডলারে ফটো শেয়ারিং সাইট Flickr-কে  কিনে নিয়ে একে তারা সোশ্যাল মিডিয়া সাইটে রুপান্তর করতে চাইলেও অদূরদর্শীতা ও দুর্বল ব্যবস্থাপনার কারণে সেই প্রজেক্ট ও ব্যর্থ হয়। 

তবে একই বছরে ইয়াহু আলিবাবার ৪০ শতাংশ শেয়ার কিনে নেয় যা ছিল ইয়াহুর ভুলের স্রোতে অন্যতম সঠিক সিদ্ধান্ত।  কেননআ পরবর্তীতে এর কারণেই ইয়াহু দেউলিয়া হওয়া থেকে রক্ষা পায় এবং এই ৪০ শতাংশ শেয়ারের বর্তমান মূল্য প্রায় ৫০ বিলিয়ন ডলার।

নতুনত্বের অভাব, অদূরদর্শীতা এবং অব্যবস্থাপনার বেড়াজালে এক সময় হারিয়ে যায় ইয়াহু। দুইবার সুযোগ পেয়েও ইয়াহুর কিনতে না চাওয়া গুগল দখল করে নিয়েছে ইয়াহুর জায়গা। এগিয়ে গেছে অনেক দূর। গুগলের ধারে কাছে নেই কেউ। ছোট্ট গল্পে বলা সেই অ্যালগরিদম ই ছিল গুগলের উত্থানের মূল হাতিয়ার। সেই সময়ে ১ মিলিয়ন ডলারে অ্যালগরিদমটি ইয়াহু কেনেনি বলেই গুগল আজ তার অবস্থানে আসতে পেরেছে। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Oops!
It seems there is something wrong with your internet connection. Please connect to the internet and start browsing again.
AdBlock Detected!
We have detected that you are using adblocking plugin in your browser.
The revenue we earn by the advertisements is used to manage this website, we request you to whitelist our website in your adblocking plugin.
Site is Blocked
Sorry! This site is not available in your country.