ডোমেইন কি? বাছাই করুন আপনার ওয়েবসাইটের জন্য সেরা ডোমেইন

আমাদের নিশ যদি হয় স্বাস্থ্য আর আমাদের ডোমেইন নেম যদি হয় অন্য কিছু যেমন bdnews তাহলে গুগলে যখন health tips লিখে কেউ সার্চ করবে তখন গুগল আমাদের ওয়েবসাইট
Please wait 0 seconds...
Scroll Down and click on Go to Link for destination
Congrats! Link is Generated

"শূন্য থেকে ব্লগিং" কোর্সটির প্রথম পর্বে আমরা আমাদের ওয়েবসাইট এর নিশ নির্বাচন সম্পর্কে জেনেছি৷ আজকে আমরা জানবো কিভাবে আমরা আমাদের নিশ অনুযায়ী আমাদের ওয়েবসাইট এর জন্য একটি ডোমেইন নির্বাচন করব।

ডোমেইন কি?

ডোমেইন হলো ইন্টারনেটে একটি ওয়েবসাইটের পরিচিতি। প্রত্যেক মানুষের যেমন একটি নাম রয়েছে, ঠিক তেমনি প্রত্যেক ওয়েবসাইটকেও একটি নাম দেয়া থাকে যা দেখে ইন্টারনেট ওয়েবসাইটটিকে শনাক্ত করতে পারে। তবে কয়েকজন মানুষের একই নাম থাকলেও কয়েকটি ওয়েবসাইট একই ডোমেইন নেম ও এক্সটেনশন এ থাকতে পারে না। লাইভ বা চলমান প্রত্যেক ওয়েবসাইটের একটি ইউনিক ডোমেইন থাকে।

ডোমেইন কি?

একটি ডোমেইনে দুটো অংশ থাকে। নেম ও এক্সটেনশন। নেম যেমন - facebook, twitter, mytechsolutions এসব এবং এক্সটেনশন হলো .com  .org ইত্যাদি।  এক্সটেনশনকেও অনেকে ডোমেইন বলে থাকে। আমরা এখন যে ওয়েবসাইটে আছি তার নাম 

www.mytechsolutions.tech এখানে www হলো ইন্টারনেট প্রোটকল যার পূর্নরুপ world wide web. mytechsolutions হলো নেম, .org হলো এক্সটেনশন। 

একটিই ওয়েবসাইটের নেম এবং এক্সটেনশন দুইটিকে একত্রে বলা হয় ডোমেইন। এখন যদি কেউ একই নামে অর্থাৎ mytechsolutions.tech নামে আরেকটি ডোমেইন কিনতে চায় তবে সে তা পারবে না, আবার একই নেম দিয়ে অন্য এক্সটেনশন দিয়ে চাইলে খুলতে পারবে যদি একই নামে অন্য এক্সটেনশনে ডোমেইন এভেইলবল থাকে। যেমন - mytechsolutions.tech একই ডোমেইন লাইভ বা চলমান অবস্থায় শুধু একটিই থাকতে পারে।

ডোমেইনের ধরন

ডোমেইন সাধারণত দুই ধরনের হয়। ফ্রি ও পেইড।

ফ্রি ডোমেইন মূলত সবচেয়ে জনপ্রিয় দুইটি ওয়েবসাইট প্লাটফর্ম  ব্লগার (.blogspot.com) ও ওয়ার্ডপ্রেস এক্সটেনশন(.wordpress.com)। এছাড়াও  কিছু ওয়েবসাইট ফ্রিতে (.tk,.ml) দিয়ে থাকে। তবে এসব ব্যবহার না করাই ভালো কেননা ব্লগার (.blogspot) মূলত গুগলেরই একটি প্রতিষ্ঠান এবং এসব ডোমেইন থেকে (.blogspot.com) এ এডসেন্স বেশি পাওয়া যায়। আমরা যেহেতু কোন অর্থ ব্যয় ছাড়াই সসম্পূর্ণ ফ্রিতে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করব,  তাই আমরা ব্লগস্পট ডোমেইন ব্যবহার করব। কেননা ব্লগার এবং এডসেন্স দুটোই গুগলের অধীনে এবং এতে এডসেন্স পাবার সম্ভাবনা ভালো থাকে।

ফ্রিতে নিন (.live, .tech, .me) ডোমেইন-

আপনি যদি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হন এবং আপনার কাছে যদি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দেয়া ইমেইল এড্রেস থাকে তাহলে আপনি ১ বছরের জন্য এই ডোমেইন ফ্রি পাবেন education.github.com থেকে। আপনাকে শুধুমাত্র আপনার বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেইল দিয়ে একাউন্ট খুলে এডুকেশনে এপ্লাই করতে হবে এবং সেখান থেকে আপনি অনেক সুবিধা ফ্রিতে পাবেন।

ডোমেইন নির্বাচনে কিছু গুরুত্বপূর্ণ দিক -

১. নিশ সম্পর্কিত নাম দেয়া

২. ডোমেইন নেমে নিশ সম্পর্কিত কিওয়ার্ড রাখা

যদি আপনি কাস্টম ডোমেইন অর্থাৎ  ব্যবহার করেন, তা হলে -

৩. ডোমেইন পূর্বে ব্যবহৃত কিনা দেখা

৪. ভালো এক্সপায়ার্ড ডোমেইন ব্যবহার করা (অপশনাল)

ডোমেইন নির্বাচনে কিছু গুরুত্বপূর্ণ দিক

১. নিশ সম্পর্কিত নাম দেয়া -

গুগলে যখন কোন কিছু সার্চ করা হয় তখন গুগল প্রাপ্ত তথ্যগুলো থেকে সেই ওয়েবসাইটগুলোকেই সামনে রাখে যেগুলো তার সবচেয়ে উপযোগী মনে হয়। আমাদের নিশ যদি হয় স্বাস্থ্য আর আমাদের ডোমেইন নেম যদি হয় অন্য কিছু যেমন bdnews তাহলে গুগলে যখন health tips লিখে কেউ সার্চ করবে তখন গুগল আমাদের ওয়েবসাইটকে পেছনে রেখে health শব্দযুক্ত ওয়েবসাইটকে প্রাধান্য দিবে কেননা সেটার নাম থেকে কন্টেন্টের বিষয়বস্তু বেশি একুরেট লাগবে। আবার যদি আমাদের ডোমেইনের নাম যদি হয় healthtips দিয়ে এবং আমাদের পোস্টগুলো যখন হেলথ রিলেটেড হবে,  তখন কেউ health tips বা health রিলেটেড কোন কিছু নিয়ে সার্চ করবে,  তখন গুগলের কাছে আমাদের সাইটটি বেশি রিলেটেড মনে হবে এবং সার্চ রেজাল্টে সামনের দিকে দেখাবে। ( তবে বলে রাখা ভালো, ডোমেইন, পোস্ট ও কিওয়ার্ড ছাড়াও ব্যাকলিংক, সাইট ট্রাফিক, ডোমেই অথরিটি, পেজ অথরিটি এসব বিষয় ও পেজ র্যাংক করতে ভূমিকা রাখে যা সম্পর্কে আমরা পরবর্তীতে জানব।)

২. ডোমেইন নেম এ কিওয়ার্ড রাখা -

কিওয়ার্ড হচ্ছে সেইসব শব্দ যা লিখে মানুষ সার্চ করে। যেমন মানুষ গুগলে 'বাংলা নাটক' লিখে সার্চ করে। এখানে বাংলা নাটক শব্দটি একটি কিওয়ার্ড। আমাদের ওয়েবসাইট যদি স্বাস্থ্য সম্পর্কিত হয় তাহলে স্বাস্থ্য সম্পর্কিত একটি কিওয়ার্ড আমরা সংযুক্ত করে ডোমেইন নেম বাছাই করব।যেমন healthtips, healthylife ইত্যাদি। ডোমেইন নেম এ কিওয়ার্ড থাকলে গুগল সহজে বুঝতে পারে ওয়েবসাইট কি সম্পর্কিত।  যেমন কেউ Health Tips লিখে সার্চ করলে healthtips(.)com ওয়েবসাইটের পোস্টকে গুগল অথেনটিক ও একুরেট বলে ভেবে সার্চ রেজাল্টে সামনে প্রদর্শন করবে।

৩. ডোমেইন পূর্বে ব্যবহৃত কিনা দেখা -

অনেক সময় অনেকেই ডোমেইন কিনে তা আর রিনিউ করেন না। ফলে, মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে সেই ডোমেইনটি নতুন কারও কেনার জন্য এভেইলেবল হয়ে যায়। অনেক সময় স্প্যাম পোস্টিং, স্প্যাম লিংক ব্যবহার, গুগল পলিসি ভায়োলেট করে এমন পোস্ট,  লিংক ও এমন সব সাইটে ব্যাকলিংক তৈরি করার ফলে গুগল সেই ডোমেইনকে স্প্যাম ডোমেইন বা ব্ল্যাকলিস্টেড ডোমেইন করে ফেলে, যে কারনে সেই ডোমেইন সাইটের পোস্ট সহজে ইন্ডেক্স হয়ে না বা গুগলের সামনের পেজে র্যাংক করানো হয় না, তখন গুগল সেই ওয়েবসাইট সার্চ রেজাল্টের একদম শেষ দিকে পাঠিয়ে দেয়। তাই ডোমেইন কেনার আগে expireddomains.net থেকে ডোমেইনটির স্প্যাম স্কোর চেক করে নিতে হবে। কোন সাইটের স্পাম স্কোর ১০ এর নিচে হওয়া আদর্শ, ১ হলে সবচেয়ে ভালো এবং ৩০ এর উপর হলে সেটিকে স্প্যাম ডোমেইন হিসেবে ধরা হয়।

৪. এক্সপায়ার্ড ডোমেইন - 

আপনি কাস্টম ডোমেইন বা শিক্ষার্থীদের জন্য ফ্রি ডোমেইন নিলে এক্সপায়ার্ড ডোমেইন কেনা একটি আদর্শ সিদ্ধান্ত।  কেননা অনেক সময় অনেক ভাল ওয়েবসাইট বিভিন্ন সময় এক্সপায়ার হয়ে যায়। কিন্তু সেই ডোমেইনে কাজ করা ব্যাকলিংক, অথোরিটি, পেজ রেটিং সব ই থেকে যায়। তাই নিশ রিলেটেড ও কিওয়ার্ড বাছাই করে expireddomains.net থেকে এভেইলেবল এক্সপায়ার্ড ডোমেইন থেকে ভাল ডোমেইন খুজে বের করলে সেই নতুন সাইটের  পোস্ট ও গুগলের কাছে গুরুত্ব পাবে। 

যাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেইল এড্রেস নেই, তাদের ফ্রি ব্লগস্পট এবং যাদের আছে তারা একটি এক্সপায়ার্ড ডোমেইন ব্যবহার করতে উৎসাহিত করবো।


পরের পর্বে আমরা আমাদের ওয়েবসাইটের জন্য প্লাটফর্ম নির্বাচন করা শিখব।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Oops!
It seems there is something wrong with your internet connection. Please connect to the internet and start browsing again.
AdBlock Detected!
We have detected that you are using adblocking plugin in your browser.
The revenue we earn by the advertisements is used to manage this website, we request you to whitelist our website in your adblocking plugin.
Site is Blocked
Sorry! This site is not available in your country.